Friday 27th November 2020
আজ শুক্রবার | ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আল্লামা শফী হুজুরকে শেষবার দেখতে হাটহাজারীতে লক্ষ জনতার ঢল

বশীর আল মামুন।। চট্টগ্রাম থেকে

শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ২:২৫ অপরাহ্ণ

আল্লামা শফী হুজুরকে শেষবার দেখতে হাটহাজারীতে লক্ষ জনতার ঢল
Spread the love

উপমহাদেশের কওমি সিলসিলার আলেমেদ্বীন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে শেষবার দেখতে ও জানাজায় অংশ নিতে সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লক্ষ লক্ষ আলেম, মাদরাসা শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ চট্টগ্রামের হাটহাজারী আল-জাময়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদরাসা প্রাঙ্গণে জড়ো হতে শুরু করেছেন। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ফজরের পর থেকেই এখানে মানুষের ভিড় শুরু হতে থাকে। সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ ভিড় বেড়ে হাটহাজারী মাদরাসা ও আশপাশের কয়েক কিলোমিটার এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে গেছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, নোয়াখালী, কুমিল্লা ফেনী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিলেট, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবন, কক্সবাজারসহ আশপাশের জেলাগুলো থেকে বিপুল আলেম ও শিক্ষার্থীরা জানাজায় অংশ নিতে এখানে জমায়েত হচ্ছেন। এদিকে যানজট এড়াতে ইতোমধ্যেই চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি ও চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে যান চলাচল সীমিত করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এ কারণে হাজার হাজার ভক্ত-অনুরাগীরা চট্টগ্রাম শহর থেকে হেঁটেই হাটহাজারীর দিকে রওনা দিয়েছেন।
জানা গেছে, ভোর ৪টার দিকে রাজধানীর ফরিদাবাদ মাদরাসা থেকে তার মরদেহ বহনকারী গাড়িটি চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওনা দেয়। ৯টার দিকে শাহ আহমদ শফীর মরদেহ মাদরাসা প্রাঙ্গণে পৌঁছায়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শেষবারের মতো আল্লাম শফীকে দেখেন পরিবারের সদস্যরা। পরে হাটহাজারী মাদরাসার দক্ষিণ গেটে দিয়ে শিক্ষক, শুভাকাঙ্খী ও ছাত্ররা আল্লামা শফীকে শেষবার দেখার সুযোগ পাবেন।
হাটহাজারী মাদরাসায় শুরা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ জোহরের আগ পর্যন্ত মাদরাসার কনযুদ্দাকায়েক শ্রেণিকক্ষে সবার দেখার জন্য রাখা হবে। জোহরের নামাজের পর মাদরাসা মাঠেই তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে মাদরাসা ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে বায়তুল আতিক জামে মসজিদের সামনের কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হবে।
উল্লেখ্য, আল্লামা শাহ আহমদ শফী শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬.১০ সময় রাজধানীর পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আল্লামা শফীর ভাগ্নে তাউহীদ ও হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন।#####
বশির আলমামুন
চট্টগ্রাম ব্যুরো
তাং১৯-০৯-২০২০
০১৮১২৩৭২৬৮৫

-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-